সোনায় মোড়া টয়লেটের খবর শুনেছেন, সোনার তৈরি আরও কত শত জিনিসের নাম শুনেছেন। এবার সোনায় মোড়া হোটেল। আর ঝাঁ চকচকে সেই সোনার হোটেলটি তৈরি করা হয়েছে ভিয়েতনামে। দেশটির রাজধানীতে তৈরি হয়েছে বিশ্বের সর্বপ্রথম সোনার প্লেটে নির্মিত হোটেল। হোটেলটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ডলস হানোই গোল্ডেন লেক’।

২০০৯ সাল থেকে এই হোটেলের কাজ শুরু হয়েছে। মনে করা হচ্ছে যে, চলতি বছরের শেষ দিকেই পুরোপুরি নির্মিত হয়ে যাবে তাক লা’গানো এই স্থাপনা। এই হোটেল তৈরি ক’রতে খরচ হয়েছে ২০০ মিলিয়ন মা’র্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা)।

হোটেলের ইন্টিরিয়ার এবং এক্সটিরিয়ার দুই ক্ষেত্রেই ব্যবহিত হয়েছে ২৪ ক্যারেটের সোনা। তবে সোনার পাতে পুরো হোটেল ছাড়াও হোটেলের টয়লেট সিট থেকে শুরু করে লবি, ইনফিনিটি পুল, রুম এমনকী বাথরুমের শাওয়ারও সোনা দিয়েই তৈরি করা হয়েছে। হোটেলে কোনও গেস্ট কফি খেতে চাইলে, তাকে সোনার কাপেই কফি পরিবেশন করা হবে। ভিয়েতনামের রাজধানী হানোইয়ের এখন অন্যতম ট্যুরিস্ট আক’র্ষণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এই সোনায় মোড়া হোটেল।

হোটেলের কাজ পুরোপুরি ভাবে শেষ হতে এখনও বেশ কিছু দিন বাকি রয়েছে। তবুও মানুষ একনজর দেখার জন্য সেখানে ভীড় জমাচ্ছে। সোনার পাতে মোড়া এই হোটেলে রয়েছে মোট ২৫টি তলা। হয়তো ভাবছেন এখানে উঠতে গেলে বিপুল অর্থ গচ্চা দিতে হবে। বিষয়টি তেমন নয়, হোটেলে রুম ভাড়া শুরু হচ্ছে ২৫০ মা’র্কিন ডলার (প্রায় ২১ হাজার টাকা) থেকে।