বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদ্য বিদা’য়ী অধিনায়ক ও নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফি বিন মুর্তজার নানা করো'না ভা'ইরাসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন। পেশায় তিনি একজন চিকি’ৎসক। তার নাম ডা. মাসুদ আহমেদ। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তিনি।

জা’না গেছে, করো'না ভা'ইরাস বি’স্তারের মধ্যে রো’গীদের চিকিৎ’সাসেবা দিয়ে যাচ্ছিলেন ডা. মাসুদ আহমেদ। এরই মধ্যে করো'না য় আক্রা’ন্ত হলেন তিনি। খুলনা জে’লায় তিনিই প্রথম করো'না শনা’ক্ত হওয়া চিকি’ৎসক।

এ বিষয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজে'র অধ্যক্ষ ডা. আবদুল আহাদ জা’নান, ডা. মাসুদ আহমেদের শ’রীরে করো'না উ’পসর্গ দেখা দিলে আম’রা তাকে আইসোলেশনে নিই। শনিবার তারসহ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯৬টি নমুনার পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে একমাত্র করো'না শনা’ক্ত হওয়া রো’গী মাসুদ আহমেদ। এ খবরের পর হাসপাতালের যে রেস্ট হাউসে থাকেন ডা. মাসুদ আহমেদ, সেখানে আরও ১২ চিকি’ৎসককে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। আজ তাদের সবার করো'না টেস্ট করা হবে।

উল্লেখ্য, ডা. মাসুদ আহমেদ মাশরাফির নানির খালাতো ভাই। দূ’র স’স্পর্কের নানা হলেও ডা. মাসুদ আহমেদকে খুব ভালোবাসেন মাশরাফি। প্রিয় নানা করো'না ভা'ইরাসে আক্রা’ন্তের খবর শোনার পর থেকেই বেশ উদ্বি’গ্ন রয়েছেন মাশরাফি। সূত্র: যুগান্তর