চতুর্থবারের পীক্ষার রিপো’র্টও এসেছে পজিটিভ। ফলে করো'না য় আক্রা’ন্ত কণিকাকে নিয়ে ক্রমশ চিন্তা বাড়ছে তাঁর পরিবারের। যদিও চতুর্থবারের পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরও কণিকা বেশ সু’স্থ রয়েছেন বলে দা’বি করেন অভিনেত্রী নিজে। এমনকী, হাসপাতালের আইসিইউতে নেই তিনি। সোশ্যাল হ্যান্ডেলে এমনই বার্তা দেন বলিউডের বেবি ডল গায়িকা।

তবে টানা ১০ দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকায় মনের দিক থেকে ভে’ঙে প’ড়েছেন কণিকা কাপুর। কবে হাসপাতাল থেকে বের হতে পারবেন, তা নিয়ে চিন্তা করছেন। তবে খুব শিগগিরই হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে নিজে'র পরিবারের স’ঙ্গে দেখা ক’রতে চান। যেতে চান নিজে'র সন্তানদের কাছে।

করো'না র কবল থেকে মু’ক্ত হওয়ার পরই নিজে'র সন্তানদের কাছে ফিরতে চান বলে কা’ন্নায় ভে’ঙে পড়েন কণিকা কাপুর। পাশাপাশি তিনি আরও জা’নান, হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালীন যেভাবে ভক্তদের ভালবাসা তিনি পেয়েছেন, তাতে আ’প্লুত। এভাবেই যেন ভ’ক্তরা সব সময় তার স’ঙ্গে থাকে বলেও আশা প্র’কাশ করেন কণিকা কাপুর।

এদিকেগত ৯ মা’র্চ লন্ডন থেকে ফেরার পর বলিউডের জনপ্রিয় গায়িকা কণিকা কাপুরের স’ঙ্গে পা’র্টি করেন রা’জস্থানের প্রাক্তন মু্খ্যমন্ত্রী ব’সুন্ধ’রা রাজে সিদ্ধিয়া এবং তার ছেলে। কণিকার রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর নিজে স্বে’চ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে চলে যান বসুন্ধ’রা। এরপরই তার করো'না পরীক্ষা করা হয়। তবে তাঁর রিপো’র্ট নেগেটিভ আসে বলেই নিজে'র সোশ্যাল হ্যান্ডেলে জা’নান বসুন্ধ’রা রাজে।

অন্যদিকে কণিকার অন্য ব'ন্ধু ওজস দেশাইয়ের খোঁ’জ পা’চ্ছিল না পু’লিস। অবশে’ষে জা’না যায়, ওজস মুম্বইতে র’য়েছেন। করো'না পরীক্ষার পর জা’না যায়, করো'না য় আক্রা’ন্ত হননি তিনি।