জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম বলেছেন, দেশকে আম’রা একটা পরিবারের মতো চিন্তা করি এবং করো'না ভা'ইরাসের এই বি’পদে সবাই সবাইকে সহায়তা করি।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে নিজে'র অফিসিয়াল ফেসবুকে মুশফিক একটি আবেগময়ী স্ট্যাটাস দেন। তার সেই স্ট্যাটাস হুবহু তুলে ধ’রা হল- আসসালামুআলাইকুম। আপনারা সবাই জা’নেন করো'না ভা'ইরাসের সংক্র’মণ ে চারদিকে ক্রমেই ছ’ড়িয়ে প’ড়েছে কো'ভিড-১৯ রো’গ। এই রো’গ প্র’তিরো’ধে ক’ঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও ব্য’তিক্রম নয়।

করো'না ভা'ইরাস প্র’তিরো’ধে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে যার যার জায়গা থেকে। এর অংশহিসেবে আম’রা ক্রিকেটাররা একটা উদ্যো'গ নিতে যাচ্ছি, যেটি হয়তো অনুপ্রা’ণিত ক’রতে পারে আপনাদেরও। আম’রা চলতি মাসের বেতনের ৫০ শতাংশ দিয়ে একটা তহবিল গঠন করেছি।

এই তহবিল ব্যয় হবে করো'না ভা'ইরাসের সংক্র’মণ ে আক্রা’ন্ত কো'ভিড-১৯ রো’গে আক্রা’ন্ত ও সাধারণ মানুষ যাদের গৃহবন্দি থাকা অব’স্থায় জীবন চালিয়ে নিতে অনেক কষ্ট হয়। তহবিলে জমা প’ড়েছে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মতো। কর কে’টে থাকবে ২৬ লাখ টাকা।

করো'না র বি'রুদ্ধে জিততে হলে আমাদের এই উদ্যো'গ হয়তো যথেষ্ট নয়। কিন্তু যাদের সামর্থ্য আছে সবাই যদি একস’ঙ্গে এগিয়ে আসেন কিংবা ১০ জনও যদি এগিয়ে আসেন, এই লড়াইয়ে আম’রা অনেক এগিয়ে যাব। হ্যাঁ, এরই মধ্যে করো'না মো'কাবিলায় অনেকে এগিয়ে এসেছেন। তাদের অবশ্যই সাধুবাদ জা’নাই। কিন্তু বৃহৎ পরিসরে যদি আরও অনেকে এগিয়ে আসেন, তাহলে আম’রা এই লড়াইয়ে জিততে পারব ইনশাআল্লাহ।

সেই সহায়তা হতে পারে ১০০, ৫০০০ কিংবা ১ লাখ টাকা দিয়ে। টাকা দিয়ে না হোক হতে পারে দুস্থ মানুষকে খাবার কিনে দিয়ে। আসুন পুরো দেশকে আম’রা একটা পরিবার ভেবে চিন্তা করি এবং এই বি’পদে সবাই সবাইকে সহায়তা করি। আল্লাহ আমাদের নিশ্চয়ই র’ক্ষা করবেন। ইনশাআল্লাহ।

প্রসঙ্গত, করো'না ভা'ইরাসে স্থবির হয়ে প’ড়েছে পুরো বিশ্ব। চীনের উহান প্রদেশ থেকে ছ’ড়িয়ে পড়া ভা'ইরাসের প্র’ভাব বাংলাদেশেও প’ড়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশেই মৃ'ত্যু খবর পাওয়া গেছে ৫ জনের। আক্রা’ন্ত হয়েছেন ৩৯ জন।