বয়স মাত্র ২১। জাতীয় হ্যান্ডবল দ’লের হয়ে ক্যারিয়ারের শুরুটা হ’য়েছিল কদিন আগেই। কিন্তু বেশিদিন খেলতে পা’রলেন না জাতীয় দলের হয়ে। মাত্র ২১ বছর বয়সেই প’রপারে পাড়ি জ’মিয়েছেন জাতীয় হ্যান্ডবল দলের গোলরক্ষক সোহানুর রহমান সোহান।

আজ (শুক্রবার) সকালে নিজ গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার হোসে’নাবাদ এলাকায় মোটর সাইকেল দু’র্ঘ’টনায় গু’রুতর আ’হত হন সোহান ও তার ব'ন্ধু সোলাইমান হোসেন জয় ।

স্থা’নীয়রা তাদের উ’দ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। জয় হাসপাতালে চিকিৎ’সা’ধীন অব’স্থায় মৃ ত্যুবরণ করেন। অন্যদিকে সোহানের অ’বস্থা খা’রাপ হলে তাকে উ’ন্নত চিকি’ৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পথে রাজবাড়ীতে তার মৃ ত্যু হয়।

পরিবারের সদ’স্যরা তাদের মৃ ত্যুর খবর নি’শ্চিত ক’রেছেন। সোহানুর রহমান সোহান দৌলতপুর উপজে’লার ফিলিপনগর ইউনিয়নের বাহিরমাদী গ্রামের কালু মন্ডলের ছেলে এবং সোলাইমান হোসেন জয় একই গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

স্থা’নীয় ও পারিবারিকসুত্রে জা’না গে’ছে, জাতীয় হ্যান্ডবল দলের খেলোয়াড় সোহান ছুটিতে বাড়িতে এ’সেছিলেন। শুক্রবার সকালে সে তার ব'ন্ধু জয় এর সাথে মটরসাইকেল যোগে বাড়ি থেকে দৌলতপুরে যা’চ্ছিলো। এ সময় হোসে’নাবাদ বাজারে পৌঁ’ছালে সামনে থেকে আসা স্যালো ইঞ্জিন চালিত গাড়ির সাথে মু’খোমুখি সংঘ’র্ষ হয়।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎ’সক ডা: তাপস কুমা’র সরকার বলেন, গু’রুত্বর আ’হত অব’স্থায় দুইজনকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হ’য়েছিল। এদের মধ্যে সোহানের অব’স্থা বেশি আ’শংকাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হ’য়েছিল। জয় চিকিৎ’সা’ধীন অ’বস্থায় হাসপাতালে মা’রা যায়।

গত ডিসেম্বরে বাংলাদেশ জাতীয় হ্যান্ডবল দলের হয়ে নেপালেঅনুষ্ঠিত ১৩তম সাউথ এশিয়ান গেমসে অংশ নি’য়েছিলেন সোহান। পাশাপাশি তিনি জাতীয় যুব হ্যান্ডবল দলেরও সদ’স্য ছিলেন।

সোহানের আ’কস্মিক মৃ ত্যুতে ক্রী’ড়াঙ্গনে নেমে এসে’ছে শো’কের ছায়া। বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সভাপতি এ কে এম নুরুল ফজল বুলবুলসহ, ক’র্মকর্তা, খেলোয়াড়, রেফারি ও প্র’শিক্ষকগণ তার শো’কসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদ’না জা’নিয়েছেন। সূত্র: জাগোনিউজ২৪