ভারতের উত্তর প্রদেশে দুটি মসজিদকে আজানের সময়ে মাইক ব্যবহার করার অনুমতি দিতে অ’স্বীকার করেছে ভারতের এলাহাবাদ হাইকোর্ট।

বি’চারপতি প’ঙ্কজ মিথাল এবং ভিপিন চন্দ্র দীক্ষিতের ডিভিশান বেঞ্চ ব’লেছে, ‘কোনও ধর্মই এটা শে’খায় না যে প্রার্থনা করার সময়ে মাইক ব্যবহার করতে হবে বা বা’জনা বা’জাতে হবে। আর যদি সেরকম কোনও ধর্মীয় আ’চার থেকেই থাকে, তাহলে নি’শ্চিত করতে হবে যাতে অন্যদের তাতে বি’রক্তির উদ্রে’ক না হয়।’

জৌ’নপুর জেলার বাদ্দোপুর গ্রামে অ’বস্থিত দুটি মসজিদে আজানের সময়ে মাইক ব্যবহারের অনুমতি নবায়নের জন্য আবেদন করা হ’য়েছিল। কিন্তু স্থা’নীয় প্র’শাসন মাইক ব্যবহারের অনুমতিকে নবায়ন করতে চায় নি। তার বি’রুদ্ধেই হা’ইকোর্টে পি’টিশন দা’খিল করা হ’য়েছিল।

এর প্রে’ক্ষিতে শব্দ দূ’ষণরোধ আ’ইন এবং সুপ্রিম কো’র্টের নানা রায় তুলে ধরে হা’ইকোর্টের ডিভিশন বে’ঞ্চ ব’লেছেন, ‘সংবি’ধানের ২৫ নম্বর অনুচ্ছেদ অ’নুযায়ী প্র’ত্যেক ব্য’ক্তির নিজের ধর্ম পালন করার অ’ধিকার আছে ঠিকই কিন্তু সেই ধ’র্মাচরণের ফলে অন্য কারও অ’সুবিধা করার অ’ধিকার কার’ও নেই।’