ফেনীর আ’লোচিত নুসরাত জাহান রাফি হ ত্যা মা’মলায় মাদ্রাসার অধ্য’ক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলাসহ ১৬ আ’সামিকেই ফাঁ’সির আ’দেশ দিয়েছে আ’দালত। একই স’ঙ্গে তাদের প্রত্যে’ককে এক লাখ টাকা করে জ’রিমানাও করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় ফেনীর নারী ও শিশু নি’র্যাতন দ’মন ট্রা’ইব্যুনালের বি’চারক মো. মামুনুর রশিদ এ রা’য় ঘো’ষণা করেন। নুসরাতের পরিবারের প’ক্ষে আ’দালতে এই মা’মলা ল’ড়েছেন বাংলাদেশ সুপ্রিমকো’র্ট ও ফেনী জ’জ কো’র্টের আ’ইনজীবী অ্যাডভোকেট শাহজাহান সাজু।

মা’মলাটির স’ঙ্গে স’ম্পৃক্ত হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘চলতি বছরের ২৭ মার্চ মাদরাসার অধ্য’ক্ষ সিরাজ উদ দৌলার নে’তৃত্বে যৌ’ন নি’পীড়নের ঘট’নায় ২৮ মার্চ মা’মলা করেন নুসরাতের মা। ওই মা’মলাটির আই’নজীবী ছিলাম। এরপর ১০ এপ্রিল থেকে নুসরাত হ ত্যা মা’মলার স’ঙ্গে স’ম্পৃক্ত হয়েছি।’ অ্যাডভোকেট শাহজাহান সাজু বলেন, ‘স’ম্পূর্ণ বিনা পারিশ্র’মিকে এ মা’মলাটি স্ব’প্রণোদিত হয়ে ল’ড়েছি, অনেক সময় নিজের পকেট থেকে ব্যয় করেছি। নুসরাতের পরিবারকে এক টাকাও খরচ করতে হয়নি। একটা কাগজও কিনতে হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘আমার নিজেরই তিনটা মেয়ে আছে, তারাও লেখাপড়া করে। আর কোনো মেয়েকে যেন শিক্ষা-প্রতি’ষ্ঠানে গিয়ে এমন নি’র্মমতার শি’কার হতে না হয়। সেজন্য সামাজিক দায়ব’দ্ধতা থেকে আ’সামিদের সর্বো’চ্চ দৃ’ষ্টান্তমূ’লক শা’স্তি নি’শ্চিতের জন্য আ’ইনি ল’ড়াইয়ে ল’ড়েছি। এতে পারিশ্র’মিক নেয়ার প্রশ্নই আসে না।’ সূত্র: বিডি২৪লাইভ