১৯৫৮ সালে শ’ক্তিশালী ঘূ’র্ণিঝড় ‘ইডা’র আ’ঘাতে জাপানে প্রায় দেড় হাজার মানুষ প্রা’ণ হা’রিয়েছিল। ৬০ বছর পর এরচেয়েও শ’ক্তিশালী টাইফুন হাগিবিসের তা’ণ্ডবে জা’পানের সবচেয়ে বড় দ্বীপ হনশু’তে দুই জন নি’হত ও প্রায় ৬০ জন আ’হত হয়েছেন। হাগিবিস শব্দের অর্থ ‘গতি’। ফিলিপি’ন্সের ভাষা ‘তাগালগ’ থেকে হাগিবিস শব্দটি নেওয়া হয়েছে।

হাগিবিস ১৯৫৮ সালের পর থেকে টোকিওতে আ’ঘাত হা’না সব’চেয়ে শ’ক্তিশালী টা’ইফুন হতে পারে বলে আগেই সত’র্ক করেছে জাপান সরকার। এর প্র’ভাবে বহু জায়গায় আগের রেক’র্ড ছা’ড়িয়ে যাওয়া বৃষ্টিপাত হচ্ছে বলে জা’না গেছে। এসব এলাকার মধ্যে উ’ষ্ণ প্র’স্রবণের শহর হাকোনেতে ২৪ ঘণ্টায় ৯৩৯ দশমিক পাঁচ মিলিমিটার (৩৭ ইঞ্চি) বৃষ্টিপাত হয়েছে।

শনিবার (১২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় টা’ইফুন হাগিবিস জাপানের প্রধান দ্বীপ হনশুর উপকূল দিয়ে স্থ’লে উ’ঠে আসে। পূর্ণ জো’য়ার চলার সময় টা’ইফুনটি স্থ’লে উ’ঠে আসায় কয়েকটি নদীর পানি তীর ছা’পিয়ে উ’পচে পড়ে। এতে টোকিওর নিচু এলাকাগুলোতে ব’ন্যার আশ’ঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ঝ’ড়ের প্র’ভাবে এরই মধ্যে হাজার হাজার বাড়িঘর বিদ্যুৎ বি’চ্ছিন্ন হয়ে প’ড়েছে। দোকানপাট, কারখানা এবং ট্রেন চলাচল ব্যব’স্থাও ব’ন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ঝ’ড়ের কারণে ১৬০০ এরও বেশি ফ্লাইট বা’তিল করা হয়েছে। টোকিওর কাছে নারিতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কা’র্যক্র’ম স্থা’নীয় সময় সকাল ১১ থেকে স’ম্পূর্ণ ব’ন্ধ রাখা হয়েছে।